তুমি যদি বোরখা না পড় তা হলে তোমা’র মাথার সমস্ত চুল সাপ হয়ে দোজখের মতো তোমায় কাম’ড়াবে। এই ভ’য়ে মেয়েরা বোরখা পরে। এই মেয়েটি বলছে আমা’র ইচ্ছে।

এটা না পরলে শা’স্তি হবে এই ভ’য় দেখিয়ে আ’সছে সমাজ। ভ’য়ের কথা না থাকলে কেউ এটা পরত না। এটা ইচ্ছে ক’রে কেউ পরে না। মানুষের চয়েজ হবে শ’রীরকে এরকম ঢেকে রাখতে? শ’রীর ঢেকে রাখবে কেন? না ঢাকলে পুরুষের উ’ত্তে’জ’না হবে শ’রীর দেখে। আরে, মেয়েদেরও তো যৌ’ন উ’ত্তে’জ’না হয় বলে মন্তব্য ক’রেছেন বিত’র্কিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন।

স’ম্প্রতি ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজারকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এ ধ’রনের মন্তব্য ক’রেছেন তসলিমা। সাক্ষাৎকারে তসলিমা আরো বলেন, ‘ভাষার জন্য জীবনের সব জলাঞ্জলি দিয়েছি আমি। ভাষার কাছে থাকব বলেই ইউরোপ আমেরিকা ছে’ড়ে পশ্চিমবঙ্গে গিয়েছিলাম। সেখান থেকেও আমাকে বের ক’রে দেয়া হল।

আপাতত তাই দিল্লিতে ঠাঁই পেয়েছি। জানি, আবার পায়ের তলার মাটি সরে যেতে পারে যে কোনো সময়। দেখু’ন, দিল্লিতে থাকতে চাই বলে তো থাকি না! আচ্ছা, আপনি প্রশ্ন ক’রার আগে আপনাদের কাছে আমি একটা প্রশ্ন করি? এক জন লেখক, যিনি বাংলা ভাষা আঁকড়ে বেঁ’চে আছেন, অথচ তাঁর কোনও জায়গা নেই? না পুবে না পশ্চিমে! এতেও সবাই চুপ। যেন এটাই স্বা’ভাবিক। আপনাদের কী মনে হয়?’