মানুষকে নিজের প্রতি আকর্ষিত করার তেমন কোনো রুলবুক নেই। কারণ ভিন্ন মানুষ ভিন্ন ভাবনার হন। তাদের পছন্দ অপছন্দের তালিকাও হয় ভিন্ন। কিন্তু পুরুষের কিছু সহজাত ভালোলাগা এরপরেও থেকে যায়।আর তার ভিত্তিতেই মন জয় করা যায় পুরুষের।কী সেই উপায়?

হাজাররকম উপায় বাতলে দেওয়া যায় বটে এসব ক্ষেত্রে।কিন্তু এমন কোনো উপায় অবলম্বন করবে না যাতে আপনার সঙ্গীকে খুশি করতে গিয়ে নিজেদের সেই প্রক্রিয়ায় হারিয়ে ফেলেন। তাই এই প্রতিবেদনে এমনকিছু টিপস রইল যা আপনার সঙ্গীর আপনার প্রতি আকর্ষণ বাড়াবে…এবংআপনি নিজস্বতাও হারাবেন না১. আকর্ষনীয় হয়ে উঠুন: মন এবং শরীর, উভয় মিলেই মানুষ।মনের সঙ্গে শরীরকেও প্রাধান্য দিন। নিজেকে ফিট রাখুন। নিজেকে আরো আকর্ষণীয় করে তোলার চেষ্টা করুন।

নিজের সাজ-পোশাক এবং ব্যক্তিত্বের ওপর নজর রাখুন। পুরুষকে নারীর সৌন্দর্য প্রাথমিকভাবে আকর্ষণ করে। তাই পছন্দের মানুষের মন জয় করতে নিজেকে আকর্ষণীয় করে তুলুন। প্রথমে ভালোবাসার মানুষটির চোখকে আকৃষ্ট করুন।তারপর নিজের ব্যক্তিত্ব দিয়ে তার মন জয় করুন।২. বেশি ভাববেন না: পুরুষকে নিয়ে বেশি ভাববেন না। তার প্রতি যদি আপনার চরম দুর্বলতা থাকে তবুও তাকে নিয়ে অধিক ভাববেন না।নিজের জীবন, কাজ ইত্যাদিকেও প্রাধান্য দিন।

মনে রাখবেন পুরুষরা স্বাধীনচেতা মহিলাদের বিশেষ সম্মানের চোখেদেখেন।তাই মনের মানুষটির সঙ্গে যদি কথা হয়, তাও বোঝাবেন না যে আপনি তার সঙ্গেই নিজের ভবিষ্যতের স্বপ্ন দেখছেন।সাধারণ বন্ধুত্ব বজায় রাখুন। তাকে নিজের অনুভূতি আসতে আসতে বোঝান। কিন্তু নিজের ভালোলাগা তার উপর চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করবেন না।৩. নিজেকে ভালোবাসুন: একটা কথা মনে রাখবেন,অপর কোনো ব্যক্তিকে আপনি তখনই ভালোবাসতে পারবেন যখন আপনি নিজে সম্পূর্ণ ভালোবাসতে পারবেন।

তাই আগে নিজেকে ভালোবাসুন। নিজের মতো করে সময় কাটান। বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে যান।ভালোবাসার মানুষটিকে গুরুত্ব অবশ্যই দিন। কিন্তু তাকে জীবনের কেন্দ্রবিন্দু বানিয়ে ফেলবেন না।অন্য মানুষের সঙ্গেও মেলামেশা করুন। সামাজিকতা বজায় রাখলে আপনার নিজস্বতাও বজায় থাকবে। ৪. সম্পর্কের গুরুত্ব বুঝে নিন: এবার ভেবে দেখুন যাকে মনে ধরেছে তাকে কেমনভাবে চান নিজের জীবনে?যদি ভালোবাসা শাশ্বত হয়, তবে অবশ্যই প্রয়োজনে ভালোবাসার মানুষের জন্য সাগর পাড়ি দিন। কিন্তু যদি সেই ভালোলাগা কয়েকটি ডেটের জন্য সীমাবদ্ধ হয়, তবে ভেবে দেখুন অকারণ খাটবেন কি না?—